এডমিক্সার বা উপযোগ কি?

ধরুন আপনি আপনি কংক্রিট তৈরির সাইট থেকে অনেক দূরে কাস্টিং করবেন,তখন দূরে যেতে অনেক সময় লাগবে এবং সেই সময়ে কংক্রিট তার ওয়ার্কেবিলিটি হারাবে, তখন কি করবেন  !!! তখন কাজ করার জন্য  সেটিং টাইম বাড়ানোর প্রয়োজন হয়। 
আবার ধরুন, পানির নিচে কংক্রিটিং করবেন , কিভাবে করবেন ?
কিংবা ধরুন  উচু স্থানে কংক্রিট তুলতে হবে সেক্ষেত্রে পাম্প এর সাহয্যে তুলতে হয়, তখন কংক্রিটের স্ল্যাম্প বাড়ানোর প্রয়োজন হয়।

এই সব ক্ষেত্রেই সাধারন কংক্রিট এর চেয়ে আলাদা বৈশিষ্ট্য অর্জন করতে হয়। তাহলে সাধারন কংক্রিট দিয়ে যখন সাধারন নিয়মের বাইরে বা প্রতিকূল আবহাওয়া তে কংক্রিটিং এর কাজ করতে হয় তখন কংক্রিট এর কাজের ক্ষেত্রে কংক্রিট এর সাধারন যে বৈশিষ্ট্য থাকে তার চেয়ে অতিরিক্ত যোগ্যতা বা বৈশিষ্ট  অর্জন প্রয়োজন হয় আর এই অতিরিক্ত বৈশিষ্ট্য অর্জনে সাহায্য করে এডমিক্সার।

Integral Waterproofing Admixture for Concrete Market Analysis by Recent  Developments and Overview Outlook – 2025 | Kryton, Markham, Xypex Chemical,  GCP Applied Technologies – The Courier


এডমিক্সার কে কংক্রিট এর ৫ম উপাদান বলা হয়।কংক্রিটের প্রথম ৪ টি মৌলিক উপাদানের পরেই আসে এডমিক্সার এর ব্যাবহার।

কংক্রিটের প্রথম ৪ টি মৌলিক উপাদান গুলো হলোঃ
১/ সিমেন্ট
২/ ব্রিক/স্টোন চিপস (কোর্স এগ্রিগেট)
৩/ বালু (ফাইন এগ্রিগেট)
৪/ পানি

এডমিক্চার ব্যাবহার :

১/  কংক্রিট এর ওয়ার্কেবিলিটি বৃদ্ধি করা।  কংক্রিটে পানির পরিমান বৃদ্ধি না করে ওয়ার্কেবিলিটি বৃদ্ধি করা কিংবা  কংক্রিটে পানির পরিমান হ্রাস করে একই ওয়ার্কেবিলিটি  ধরে রাখা।

২/ প্রয়োজন অনুসারে ইনিশিয়াল ও ফাইনাল সেটিং টাইম কমানো কিংবা বাড়ানো

৩/ কংক্রিটের ব্লিডিং রেশিও কমানো

৪/  কংক্রিটের সেগ্রিগেশন কমানো

৫/ কংক্রিটের স্ল্যাম্প ভ্যালু বাড়ানো কিংবা স্ল্যাম্প এর প্রবাহ নিয়ন্ত্রন করা

৬/ম্যাসিভ স্ট্রাকচারের ক্ষেত্রে  কংক্রিটের হাইড্রেশন বিক্রিয়ায় উৎপন্ন তাপ কমানো যেন কংক্রিটে ক্র্যাক না আসে

৭/ অতি দ্রুত  কংক্রিটের শক্তি অর্জন করা

৮/  কংক্রিটের শক্তি বৃদ্ধি করে

৯/ কংক্রিট এবং রিইনফোর্সমেন্ট এর মধ্যে বন্ডিং তৈরি করা

১০/ পুরাতন ঢালাইকৃত কংক্রিট এবং নতুন কংক্রিট এর মধ্যে বন্ডিং তৈরি করা

এছাড়াও আরো বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য পরিবর্তন,পরিবর্ধন কিংবা যোগ করতে এডমিক্সার ব্যাবহার করা হয়। তবে এক্ষেত্রে  খেয়াল রাখতে হবে কংক্রিট এর নির্দিষ্ট কোন ধর্ম পরিবর্তনের জন্য এডমিক্সার যোগ করার ফলে যেনো কংক্রিট এর অন্য কোন ধর্ম পরিবর্তন না হয়।

বিভিন্ন রকম এডমিক্চার  ব্যাবহার :

ASTM C494 অনুসারে ৭ ধরনের ক্যামিকেল এডমিক্সার রয়েছে

Type A: Water-reducing admixtures
Type B: Retarding admixtures
Type C: Accelerating admixtures
Type D: Water-reducing and retarding admixtures
Type E: Water-reducing and accelerating admixtures
Type F: Water-reducing, high range admixtures
Type G: Water-reducing, high range, and retarding admixtures


কখন কোন এডমিক্সার ব্যাবহার করবেন তা নির্ভর করে কাজের পরিধি এবং কাজের প্রকারের উপর।  

উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কংক্রিটঃ

যেই কংক্রিট এর উচ্চ ক্ষমতা প্রয়োজন সেখানে এই এডমিক্চার ব্যবহার করা হয়। এতে মাহক্রো বা ক্ষুদ্র সিলিকা থাকে। এই উপাদানের ব্যবহারের ফলে কংক্রিট এর যেই বৈশিষ্ঠ্য যোগ হয় তা হলো পারমিয়াবিলিটি বা পানিগম্যতা কমানো এবং এর শক্তি বাড়ানো ।

Silica fume as high-strength admixture in concrete industry - Silica Fume  for Sale, Microsilica Supplier in China

ব্যাবহারঃ
এই উপযোগ এর ব্যবহার করে ২০,০০০ পি,এস,আই (PSI) পর্যন্ত কংক্রিট এর চাপ ক্ষমতা বাড়ানো যায়।

সাধারনত হেভি ওয়েট বহনকারি কলাম,বীম ইত্যাদি কাঠামোতে এটি ব্যবহার করা হয়। গাড়ি পার্কিং এর স্থানেও এটি ব্যবহার করা হয়।

ধরনঃ
*এটি পেষ্ট বা অর্ধতরল কিংবা শুকনা

*পাউডার হিসাবে ব্যবহার করা যায়। প্রয়োজন অনুসারে অর্ধতরল বা শুকনা পাউডার ব্যবহার করা যায়। যেই প্রকারেই ব্যবহার করা যাক না কেন, গুনাগুন সমান হয়।

*সেট এক্সিলারেটর (দ্রুত সেট হওয়া) এর ব্যবহার করা হলে সিমেন্ট এর হাইড্রেশন দ্রুত হয়। যার কারণে অল্পসময়ে কংক্রিট সেট হয় এবং অল্প সময়ে শক্তে অর্জন করে। বিশেষ করে ঠান্ডা তাপমাত্রাতে।


কোন ক্যামিকেল ব্যাবহার করা হয়ঃ
এক সময় ক্যালসিয়াম ক্লোরাইড এই এডমিক্চার হিসাবে ব্যবহার করা হতো।

কিন্তু এটি দীর্ঘমেয়াদী কংক্রিট এর জন্য ক্ষতিকর। তাই বর্তমানে ক্যলসিয়াম ক্লোরাইড ব্যবহার করা হয় না। ইউরোপে কিছু কিছু ক্ষেত্র এর ব্যবহার সম্পুর্ন নিষিদ্ধ। ক্লোরাইড মরিচা ধরতে সাহায্য করে এবং যার ফলে রিইনফোর্সমেন্ট হুমকির সম্মুখিন হয়। অনেক সময় কাঠামো ভেঙ্গ পড়ে, ক্র্যাক দেখা যায়।

তবে বর্তমানে ক্লোরাইড বিহীন সেট এক্সিলারেটর পাওয়া যায়। আগে ক্যালসিয়াম ক্লোরাইড ব্যবহার করা হতো কারণ এর দাম অনেক কম।কিন্তু দেখা যায় যে ২০ বছর পর এটি দুর্বল হয়ে যায়। যেকোন ধরণের এডমিক্চার ব্যবহার এর পুর্ব এর গুনাগুন, ব্যবহার বিধি সতর্কভাবে খেয়াল করতে হবে।

সেট রিটার্ডার (ধীরে সেট হওয়া):
যখন সেটিং সময় বাড়ানোর প্রয়োজন হয় তখন এই এডমিক্চার ব্যবহার করা হয়। এটি করা হয় যাতে করে কংক্রিট ঢালাই, ভাইব্রেশন বা কমপ্যক্শন সঠিক ভাবে করা যায়।

Retarders for Concrete - Mechanism, Types and Effects on Properties

ব্যবহারঃ
কংক্রিট এর গাড়ি প্রকল্প স্থানে যেতে রাস্তায় জ্যামের কারনে কিংবা প্রকল্প স্থান দূরে হলে অনেক সময় লাগে , এছাড়াও অন্য যেকোনো কারণে দেরি হলে কিংবা ঢালাইয়ের জন্য দক্ষ শ্রমিকের অভাবে অনেক সময় প্রকল্পের কাজ দেরি হয় এসব ক্ষেত্রে কংক্রিট এর সেটিং টাইম বাড়ানোর জন্য সেট রিটার্ডার ব্যাবহার করা হয়।


আবার ম্যাসিভ কোন প্রজেক্টের ঢালাইয়ে যদি উপরের অংশ খুব আগে জমাট বেধে যায় এবং নিচের অংশ পরে জমাট বাঁধে যার কারণে ক্র্যাক দেখা যায়। এর থেকে রক্ষা পেতেও এই এডমিক্চার ব্যবহার করা হয়।

কোন ক্যামিকেল ব্যাবহার করা হয়ঃ
calcium sulfate or plaster. Starch, cellulose products, common sugar, acid salts 

ওয়াটার রিডিউসার
নামের মাধ্যমেই বোঝা যায় এই এডমিক্সার ব্যাবহার হয় পানি কম ব্যাবহারের জন্য , অর্থাৎ কংক্রিটে প্রয়োজনের চেয়ে কম পরিমান পানি ব্যাবহার করেই যেনো উচ্চ স্ল্যাম্প ভ্যালু , এবং বেশি ওয়ার্কেবিলিটি  ধরে রাখা যায় সেটা নিশ্চিত করাই এই এডমিক্সার এর কাজ।

Material Matters: Water-Reducing Admixtures - NPCA

ব্যাবহারঃ

সাধারনত উচু স্থানে কংক্রিট তুলতে হলে পাম্প এর সাহয্যে তুলতে হয়। তখন এর স্ল্যাম্প বাড়ানোর প্রয়োজন হয়। অথবা মেঝে বা ছাদের কাজের জন্যও স্ল্যাম্প বাড়ানোর প্রয়োজন হয়। মোট কথা এই উপযোগ ব্যবহার এর কারণে কংক্রিট এর স্ল্যাম্প বাড়ে কিন্তু শক্তি কমেনা।

এছড়াও গরম আবহাওয়াতে এটি বেশি ব্যবহার করা হয় যাতে করে গরম আবহাওয়াতে এর কংক্রিট কম সময়ে জমাট বাধতে না পারে কংক্রিট এর প্রাথমিক জমাট বাধা (সেটিং ) ধীরগতি করে দেয় কংক্রিট রাখা বা কাজের স্থানে ফেল সহজ করে পানি-স্বল্পকরণ এডমিক্চার

ধরনঃ

২ ধরনের ওয়াটার রিডিউসার আছে
১/ সাধারণ ওয়াটার রিডিউসারঃ এই ধরনের পানি- স্বল্পকরণ এডমিক্চার  ৫% পানি কমায়। এবং এর স্ল্যাম্প ১ থেকে ২ ইঞ্চি বাড়ায়।
২/ মাঝারি ওয়াটার রিডিউসারঃ এই ধরনের পানি- স্বল্পকরণ এডমিক্চার  ৮% থেকে ১৫% পানি কমায়। ৪ থেকে ৫ ইঞ্চি স্ল্যাম্প ব্যবহার করতে হলে এটি ব্যবহার করা হয়।

৩/ সুপারপ্লাস্টিসাইজারঃ এটি ১২% থেকে ৪০ পর্যন্ত পানি কমায়। ৮ থেকে ১১ ইঞ্চি স্ল্যাম্প ব্যবহার করার জন্য এটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

কোন ক্যামিকেল ব্যাবহার করা হয়ঃ

সাধারনত Calcium, sodium, and ammonium lignosulfonates অনেক বেশী ব্যাবহার হয়।  এছাড়াও কিছু নতুন জেনারেশনের এডমিক্সারে  acrylic polymers, polycarboxylates, multicarbovyl এ র ব্যাবহার ও দেখা যায়।

এক্সিলারেটোরঃ

এই ধরনের এডমিক্সার সাধারনত সিমেন্টের ইনিশিয়াল হার্ডেনিং টাইম কমিয়ে নিয় আসে। অর্থাৎ এর ফলে কংক্রিট দ্রুত সেট হয়।

ব্যাবহারঃ
কম তাপমাত্রার সময় কাস্টিং করতে
দ্রুত রিপেয়ারিং কাজে
কোন কারনে যদি দ্রুত শাটারিং রিমোভ  করতে হয়


কোন ক্যামিকেল ব্যাবহার করা হয়ঃ

সাধারনত triethanolamine, calcium formate, active silica, calcium chloride, finely divided silica gel এই ধরনের এডমিক্সার হিসেবে ব্যাবহার করা হয়

এয়ার এন্ট্রেইনিং এডমিক্সারঃ
এয়ার এনট্রেমেন্ট অ্যাডিমিকচার কংক্রিট প্রযুক্তির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার। এর প্রধান কাজ হিমশীতল তাপমাত্রার পরিস্থিতিতে কংক্রিটের স্থায়িত্ব বাড়ানো।

এয়ার এন্ট্রেইনিং এডমিক্সারঃ  
কংক্রিটের মিশ্রণে যুক্ত হলে,ওয়ার্কেবিলিটি,সেগ্রিগেশন রোধ করা ,কংক্রিটের ব্লিডিং এর পরিমান হ্রাস করে  ।

কোন ক্যামিকেল ব্যাবহার করা হয়ঃ

সাধারনত  wood resins, alkaline salts, animal and vegetable fats, and oils ইত্যাদি এই ধরনের এডমিক্সার হিসেবে ব্যাবহার করা হয়।

বাংলাদেশের কংক্রিট এডমিক্সার বাজারের সাথে জড়িত শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলি হলো- Baral Chemical, BASF, Fosrok, Pidilite, Conmix, Conpacmix, Chryso, W. R. Grace, Sika ইত্যাদি।

Author:
Engr.Towhidul Islam
Assistant/ Upazila Assistant Engr (Civil), LGED [Recommended]

Find us
Facebook Page: https://www.facebook.com/DesignIntegrityBd
Facebook Group: https://www.facebook.com/groups/CivilianStudyZone

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here